Latest:
Default Ad Banner

Today: 29 May 2020 - 05:02:11 pm

ডিমলায় বিজয় দিবসে বীরমুক্তিযোদ্ধা,শহীদ পরিবার ও সন্তানদের সংবর্ধনা প্রদান

Published on Monday, December 16, 2019 at 12:51 pm 48 Views

ডিমলায় বিজয় দিবসে বীরমুক্তিযোদ্ধা শহীদ পরিবার ও সন্তানদের সংবর্ধনা প্রদান
হামিদা আক্তার, নিজস্ব প্রতিবেদক : নীলফামারীর ডিমলায় ৪৮-তম বিজয় দিবসে বীরমুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ পরিবার এবং মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের সংবর্ধনা দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন। মহান বিজয় দিবসে যথাযোগ্য মর্যাদায় উদযাপন উপলক্ষে নানা কর্মসূচীর মধ্যে দিয়ে দিবস উদযাপন করেন ডিমলা উপজেলা প্রশাসন। সূর্য্য উদয়ের সাথে সাথে দিবসটির কার্যক্রম শুরু হলে মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি অম্লান মুক্তিযোদ্ধা স্মরনীর পাদদেশে উপজেলা প্রশাসন ও সরকারী-বেসরকারী সংস্থা সমূহ পুষ্পার্ঘ অর্পন শেষে উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্টানের শিক্ষার্থীরা বীরমুক্তিযোদ্ধাদের শ্রদ্ধা জানিয়ে পুষ্পমাল্য অর্পনে শ্রদ্ধাঞ্জলী জ্ঞাপন করেন। এরপরেই উপজেলা পরিষদ মাঠে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সংস্থা সমুহের কুচকাওয়াচ অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় বীরমুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ পরিবারের সদস্য ও মুক্তিযোদ্ধা সন্তানদের ফুলের শুভেচ্ছা দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়ে মাঠে অর্ভ্যথনা জানানো হয়। বেলা ১২টায় উপজেলা অডিটরিয়াম হল রুমে বীরমুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ পরিবার এবং মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের সংবর্ধনা দেওয়া হয়। এ সময় উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা তবিবুল ইসলাম। বক্তৃতা করেন বিশেষ অতিথি উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান বাবু নিরেন্দ্রনাথ রায়, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আয়সা সিদ্দিকা, উপজেলা আওযামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুল হক সরকার মিন্টু ও ডিমলা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মফিজ উদ্দিন শেখ। উক্ত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে আরো বক্তৃতা করেন সাবেক উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা সামছুল হক, মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের পক্ষে মুক্তিযোদ্ধার সন্তান মহববত হোসেন বক্তৃতায় দাবী তুলে বলেন নীলফামারী জেলায় যেসব রাজাকারের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রনালয় হতে তাদের অপরাধের ক্যাটাগরি অনুযায়ী বিচারের আওতায় এনে বিচার করতে হবে। সেই সাথে মুক্তিযুদ্ধের মহানায়ক মুক্তিযুদ্ধেও প্রাণপুরুষ জাতির জনকের কন্যা মাননীয় প্রধানন্ত্রীর হাতকে শক্তিশালী করতে হবে। তিনি আরো বলেন, অতীতের মতো উপজেলা সকল মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের একত্রে থেকে মুক্তিযুদ্ধেও চেতনা বাস্তবায়নে অতন্ত্র প্রহরী হয়ে কাজ করে যেতে হবে। অন্যায় অবিচারের বিরুদ্ধে লড়ে যেতে হবে একসাথে।সংবর্ধনা অনুষ্ঠান শেষে প্রত্যেক বীরমুক্তিযোদ্ধার হাতে নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে ন্যাশনাল আইডি’র স্মার্ট কার্ড তুলে দেওয়া হয়।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *