Latest:

Today: 16 Nov 2019 - 09:38:33 am

এরশাদের মৃত্যুতে শোকে স্তব্ধ রংপুর

Published on Monday, July 15, 2019 at 5:44 pm 0 Views

simantotimes24

নুর আলম,রংপুর :
‘রংপুরের ছাওয়ালখ্যাত’ হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ এর মৃত্যুতে শোকে স্তব্ধ পুরো রংপুর। সবাইকে কাঁদিয়ে না ফেরার দেশে চলে গেলেন, তুরুপের তাস খ্যাত এই রাজনীতিবিদ।
দলমত নির্বিশেষে সবার চোখ এখন অশ্রুসিক্ত। দীর্ঘদিনের অভিভাবককে হারিয়ে আহাজারি থামাতে পারছেন না তাঁর (জাতীয় পার্টি) দলের নেতাকর্মী থেকে সমর্থকরাও।
গতকাল রোববার সকালে সাবেক রাষ্ট্রপতি ও সাবেক সেনা প্রধান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে রংপুর মহানগরীর সেন্ট্রাল রোডস্থ জাতীয় পার্টির দলীয় কার্যালয়ে বাড়তে থাকে নেতাকর্মীদের ভিড়। সেখানে জাতীয় ও দলীয় পতাকার সাথে উড়ছে কালো পতাকা।
দলীয় কার্যালয়ের মতোই পুরো রংপুর জুড়ে এরশাদ ভক্তদের শোকবহ হৃদয় এখন কালো মেঘে আচ্ছন্ন। তার এই মৃত্যুতে রংপুরবাসী অভিভাবকহীন হয়ে পড়ল বলেও মন্তব্য করেছেন দলের সিনিয়র নেতারা।
আর অন্য দলের নেতারা বলছেন, এরশাদের জীবদ্দশার কর্মকাÐই তাকে মূল্যায়ন করবে।
এরশাদের হাত ধরে তৃণমূল থেকে রাজনীতির মঞ্চে সফলতার দেখা পেয়েছেন মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা। তিনি এখন জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য, রংপুর মহানগরের সভাপতি ও রংপুর সিটি মেয়র। কান্না জড়িত কণ্ঠে মোস্তফা বলেন,‘আজ আমার পিতাকে হারালাম। আমার জীবনের পরম অভিভাবক ছিলেন। তাঁকে প্রস্থানের পরও মানুষ আজীবন মনে রাখবে।
তিনি বলেন, স্যার সব সময়ই দেশের জন্য চিন্তা করতেন। রংপুরের মানুষের কথা বলতেন। আজ স্যার নেই। রংপুরের মানুষ একজন অভিভাবককে হারালো।
রংপুর জেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মমতাজ উদ্দিন আহমেদ শোক জানিয়ে বলেন, এরশাদ সাহেব রংপুর থেকে তার রাজনীতির ভিত্তি স্থাপন করেছেন। রংপুরবাসী তাকে বানিয়েছেন দেশের রাষ্ট্রপতি, মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি ছিলেন রংপুরের সাংসদ। তাকে হারিয়ে রংপুরবাসীসহ জেলা আওয়ামীলীগ শোকাহত।
এদিকে এরশাদের মৃত্যুতে মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি শাফিউর রহমান শফি বলেন, তিনি আমাদের এমপি ছিলেন। দেশের রাষ্ট্রপতি ছিলেন। রংপুরবাসী আজ তাকে হারিয়ে মর্মাহত। মহানগর আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃত্যুতে গভীর শোকপ্রকাশ করা হয়েছে।
মহানগর বিএনপি’র সভাপতি মোজাফফর হোসেন, বলেন একজন প্রবীন রাজনীতিবিকে আমরা হারালাম, রংপুরের খেটে খাওয়া মানুষের একজন জনপ্রিয় নেতা ছিলেন, সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। একজন প্রবীন রাজনীতিবিদের মৃত্যুতে তার শূন্যতা পূরন হবার নয়।
রংপুর জেলা জাসদের সাধারণ সম্পাদক বাবু কুমারেশ রায় শোক জানিয়ে বলেন, রংপুরের খেটে খাওয়া মানুষগুলো আজ তাদের অভিভাবককে হারাল। রজনীতির ক্ষেত্রে সাবেক এ রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ ছিলেন তুরুপের তাস। রংপুর জাসদ পরিবার তার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করে তার বিদায়ী আতœার মাখফেরাত কামনা করে বলেন, প্রবীণ এ রাজনীতিবিদকে সৃষ্টিকর্তা জান্নাতবাসী করেন।
জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের জানাজা আগামী মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) বাদ জোহর রংপুরে অনুষ্ঠিত হবে। ঢাকায় তাঁকে দাফনের সিদ্ধান্ত নেয়া হলেও রংপুরের সর্বস্তরেরর মানুষ চাইছেন রংপুরই হোক এরশাদের শেষ ঠিকানা।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *